June 5, 2020

CHALAMAN

Mirsarai

শেষ বিদায় জানাবে “শেষ বিদায়ের বন্ধু”

শাহ আবদুল্লাহ আল রাহাত :

এমন এক মৃত্যু যেখানে শেষ বিদায় জানাতেও নিষেধাজ্ঞা, নেই স্বজনদের আহাজারি কিংবা বিদায় জানানোর করুণ দৃশ্য। থাকবে না ১০ কদম পর পর কাঁধ পরিবর্তনের রীতিনীতি। কিছু আগেও যেখানে মৃত্যুর সংবাদে মাঠ ভর্তি মানুষ অপেক্ষায় থাকতো শেষ বারের মতো প্রিয় মানুষকে বিদায় জানাতে।

যেখানে স্বজনদের হামাগুড়ি দিয়ে কান্নার আওয়াজে আর বিলাপের সুরে ভারি হতো আকাশ বাতাস। আজ সেখানে আপনজনের বিদায় ছাড়াই সাড়ে তিন হাত মাটির ঘরে চিরদিনের চলে যেতে হয় প্রিয় মানুষটিকে।

বেঁচে থাকলে থাকতে হয় তিন ফুট দূরত্বে আর চিরবিদায় হয়ে গেলে ১০ ফুট দূরত্বে ও যেতে মানা। তাই তো এতসব আয়োজন। শেষ বিদায়ে থাকবে না কেউই। আর যারা থাকবে তারাই শেষ বিদায়ের বন্ধু।

৫ লক্ষ মানুষের আবাসস্থল মিরসরাইয়ে কোভিড ১৯ কিংবা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দুনিয়া থেকে চিরবিদায় হয়ে যাওয়া মানুষগুলোকে শেষ বিদায় জানাতে প্রস্তুত “শেষ বিদায়ের বন্ধু”। উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন এবং দুই পৌরসভার মানুষের মানবিক সেবা প্রদানের লক্ষে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে সংগঠনটি।

গত শনিবার সকাল ১১টায় ওয়ার্লেস দারুল উলুম মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো সংগঠনের প্রস্তুতি সভা। দারুল উলুম মাদ্রাসার পরিচালক হাফেজ মাওলানা শোয়াইব এর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ডাঃ এস এ ফারুক, চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন, সাংবাদিক নুরুল আলম, কমফোর্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন।

এসময় সভায় উপস্থিত ছিলেন শেষ বিদায়ের বন্ধু নামক মানবিক সংগঠনটির উপজেলার ১৮ ইউনিটের টিম লিডারবৃন্দ।

করোনায় আক্রান্ত মৃত মানুষগুলোকে শেষ বিদায় জানাতে সভায় টিম লিডারদের প্রয়োজনীয় ইকুইপমেন্ট, ব্যবহার বিধি, কর্মপরিকল্পনা ও সংগঠনের লক্ষ উদ্দেশ্য নিয়ে আলোচনা করা হয়। এসময় নিশ্চিত করা হয় লাশ গোসল ও দাফনের জন্য পিপিই, তিন স্তরের হ্যান্ড গ্লাভস, গগেজ, মাস্ক, গাম বুট, কবর খোড়ার প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কোদাল, খুন্তি, বাডাইল, করাত, কুড়াইল, মাটি তোলার খাঁচা, জীবানু নাশক স্প্রে মেশিন, ব্লিচিং পাউডার, হ্যান্ড সেনিটাইজারসহ আনুষঙ্গিক প্রস্তুতির বিষয়টি।

শুধু শেষ বিদায়ে পাশে থেকে নয় আর নানাবিধ উদ্যোগ গ্রহণ করে মিরসরাই মানুষের পাশে থাকতে চায় সংগঠনটি। তাই “শেষ বিদায়ের বন্ধু” হাতে নিয়েছে আরো গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, পর্যায়ক্রমে এই সংস্থা নানারূপ মানবতাবাদী বাস্তবমুখী জনহিতকর কার্যক্রমে সম্পৃক্ত হয়ে আত্ম মানবতার সেবায় কাজ করবে। বে-ওয়ারিশ লাশ দাফন ও অসমর্থ লোকদের লাশ দাফনের ব্যবস্থার বিষয়টিও সেখানে উল্লেখ করা হয়।

এছাড়া রয়েছে ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস প্রদান, এতিমখনা ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা ও পরিচালনা, ঈদে দুঃস্থ পুরুষ ও মহিলাদের মাঝে নতুন কাপড় বিতরণ, দুঃস্থ ও অক্ষম পরিবারদের সাহায্য প্রদান, দুর্যোগ সময়কালীন দুর্গত এলাকায় ত্রাণকার্য্য পরিচালনা করা, পবিত্র রমযানে দুঃস্থ এতিমদের ইফতার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া।

তাছাড়া আরো রয়েছে লাশ গোসলের স্থায়ী ব্যবস্থা করা, উপজেলা কেন্দ্রীয় গোরস্থান নির্মাণ, গ্রামে যারা মৃত ব্যক্তিকে গোসল ও কবর খোড়ার কাজ করেন তাদের প্রশিক্ষন, মসজিদ ভিত্তিক কোরআন শিক্ষা, কেরাত প্রতিযোগিতা, ইসলামি সাধারণ জ্ঞান ও রচনা প্রতিযোগিতা এবং রমযান মাসে সেরা হাফেজ নির্বাচন সম্মাননা প্রদানের কথা জানান সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ।

এসময় তারা আরো বলেন মিরসরাই অঞ্চলের গরিব, দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের সাহায্যার্থে এবং পরিপূর্ন ধর্মীয় রীতিনীতি অনুসরণ করে যে কোন মৃত ব্যাক্তির লাশ গোসল, দাপন-কাপন ও জানাযার লক্ষে মিরসরাই উপজেলার ১৮টি ইউনিটে সমাজ দরদী মানবতাবাদীদের সহায়তায় গঠিত হয়েছে “শেষ বিদায়ের বন্ধু” সংগঠন।

প্রতিটি ইউনিটে ৭জন পুরুষ এবং ৫ জন মহিলা হিসেবে মোট ২১৬ জন সেবক হিসেবে কাজ করবেন। উপজেলা সমন্বয় কমিটির নির্ধারিত হটলাইনে ফোন দিয়ে মানুষ এ সংগঠনের ফ্রী সেবা গ্রহন করবে। এ সংগঠন সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক, অলাভজনক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা হিসেবে পরিচালিত হবে। পর্যায়ক্রমে আরো কিছু সেবা মুলক কার্যক্রম সংযোজন হবে। সংগঠনের সেবা পেতে নিচে উল্লিখিত হটলাইন নাম্বারে ফোন দিয়ে (+8801815604723,+8801819107171,+8801726301123) যোগাযোগ করার অনুরোধ জানায় সংগঠনটি।

“শেষ বিদায়ের বন্ধু”পরিবারের সদস্য হয়ে নিজেকে গর্বিত মনে করছেন বারইয়ারহাট শেফা ইনসান হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডাঃ এস এ ফারুক। তিনি বলেন, বেঁচে থাকতে জীবনে বন্ধুর অভাব হয় না তবে মৃত্যুর পর শেষ বিদায়ের বন্ধু সবাই হতে পারেনা।এসময় তিনি মহৎ মানবিক উদ্যেগের জন্য উদ্যেক্তাদের ধন্যবাদ জানান।

১নং করেরহাট ইউপি চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন বলেন, সময়ের সাথে সামঞ্জস্য রেখে জেগে ওঠেছে শেষ বিদায়ের বন্ধু সংগঠনটি। এটি এখন সকলেরই দাবি। এসময় তিনি কিছু বিরোধিতা আসলেও হতাশ হয়ে হাল ছাড়া যাবেনা। সংগঠনটি মিরসরাইয়ে শিক্ষা, চিকিৎসা ও ধর্মীয় শিক্ষা বিস্তারে অনন্য অবদান রাখবে বলে তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

দিন শেষে নিঃস্তব্ধতার প্রথরে অ্যাম্বুলেন্স সাইরেন বাজিয়ে করুণ সুরে আর্তনাদ করলেও চিরবিদায় জানাতে হয়তো পাশে থাকবেনা প্রিয়জনেরা। তখনই হটলাইন গুলোতে পৌঁছে যাবে খবর আর ছুটে আসবে “শেষ বিদায়ের বন্ধু”।

-সিএম

Double Categories Posts 1

Double Categories Posts 2



প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক : মোহাম্মদ মনজুরুল হক, সম্পাদক : এম এস হোসাইন।
সম্পাদকীয় কার্যালয় : সোনালী ব্যাংক ভবন (২য় তলা), কোর্ট রোড, মিরসরাই, চট্টগ্রাম।
মোবাইল: ০১৯১৯৫৪০৬৫৫, ০১৮১৫৫০০৭০৫, ০১৮১২৭৫৯৬৬০, ০১৮২৯৬২৩৪৩১; ই মেইল: chalamannews@gmail.com


This website is under constructions by: MACRO, Email: macrotelctg@gmail.com