August 6, 2020

CHALAMAN

Mirsarai

বিন্দু পৃথিবী

আনজানা ডালিয়া

অচেনা পৃথিবীতে পা রাখার পর মানুষ আস্তে আস্তে আবিষ্কার করে তার পৃথিবীর ব্যাপ্তি।বিশাল আকাশের নিচে ছড়ানো ভুমি প্রান্তর, সাগর নদী, বৃক্ষ, মাঠ ইত্যাদি ফ্যালফ্যাল করে তাকিয়ে থাকে নীল আকাশের দিকে। ভালোবাসার অদৃশ্য সম্পর্ক গড়ে উঠে পরশহীন মমতায়।

দিবাকরের প্রচন্ড উত্তাপ অথবা রাতের শীতল অনুভব সবকিছু ভাগাভাগি করে নেয় আকাশ জমিনের সব সৃস্টি। ঘুর্নায়মান ভালোবাসার বেগে ঘোরে পৃথিবী আপন কক্ষে । ভালোবাসার এমন অনেক উপাখ্যান জড়ানো কতশত শব্দ এখন মৌমিতার ভালো লাগেনা। সীমাহীন বিষন্নতার পৃথিবী গড়ে উঠেছে মৌমিতার মনে। সব সময় একটা অদৃশ্য কালো মেঘের অস্তিত্ব অনুভব করে ও।

যন্ত্রনার কালিতে ভরিয়ে তোলে হৃদয়ের ডায়েরি। ক্যালেন্ডারের দিকে চোখ পরতেই শিউরে উঠে মৌমিতার গা। আজ ১৭ই এপ্রিল। প্রচন্ড কষ্টে বুকটা দুমড়ে মুচড়ে ভেঙে যাচ্ছে মৌমিতার। একটা দীর্ঘশ্বাস ছাড়ে মৌমিতা। মিলনের ডায়েরিটা বুকে চেপে ধরে। ডায়রিতে লেখা কবিতা গুলো বারবার পড়তে থাকে। ক্লান্তি এসে মৌমিতার চোখে চেপে ধরে। হাত থেকে খসে পড়ে ডায়েরি।

দরজায় কড়া নাড়ার শব্দ। কে আবার এই অসময়ে। বিরক্তিমুখে নিয়ে দরজা খোলে মৌমিতা। খুলতেই মুহুর্তে চমকে যায় ও। ওপাশে লাল টকটকে পাঞ্জাবীটা পড়ে মিলন দাড়িয়ে। পৃথিবীর সমস্ত সুখ যেন মিলনের হাসিতে উপচে পড়ছে।

তোমাকে ছেড়ে থাকতে পারলামনা। তাই চলে এলাম। কান অবশ করা এই শব্দ গুলোই উচ্চারন করেছিলো।

মৌমিতা মুহুর্তের মধ্যে পাথর মুর্তি হয়ে যায়। সমস্ত অনুভুতি কয়েক মুহুর্তের জন্য বন্ধ হয়ে যায়।

ভাবী ঔষধ খেয়েছেন -প্রিতীর ডাকে তন্দ্রাচ্ছন্নতা কাটে মৌমিতার। লাল ঝলমলে পৃথিবীটা মুহুর্তেই সাদা হয়ে যায়। দরজাটা খোলা, ওপাশে আর কোনদিন লাল পান্জাবী পরে দাড়াবেনা মিলন। ডাকবেনা আর আদর করে মিতা নামে। কয়েক ফোঁটা পানি ঝরে পরলো মৌমিতার চোখ বেয়ে।

ক্যালেন্ডারের পাতাগুলো বড্ড দ্রুত দৌড়াচ্ছে। মৌমিতার পৃথিবীটা ছোট করে দিয়ে মিলন চলে গেছে ঐ দুর নীলিমায়। মৌমিতা কি জানতো এতো স্বল্প সময়ের জন্য মিলন মৌমিতার জীবনে এসে এলোমেলো করে দিয়ে যাবে। সব কষ্টের বোঝা মৌমিতা কে দিয়ে মিলন পালালো। সবকিছু ঠিকঠাক মতো চললে মৌমিতার পৃথিবী এক বিন্দুতে এসে ঠেকবে যথাসময়ে।

downloadfilmterbaru.xyz bigoporn.club bok3p.site sablonpontianak.com

Double Categories Posts 1

Double Categories Posts 2