মায়ানী ইউনিয়নের সংরক্ষিত-১ এ পুনরায় ভোট গণনার দাবী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

মিরসরাইয়ের ১৩ নং মায়ানী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সংরক্ষিত-১ (১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ড) এ পুনরায় ভোট গননার দাবী করেছেন তালগাছ প্রতীকের প্রার্থী বিবি হাফসা সোমা (৩০)। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) উপজেলার মায়ানী ইউনিয়নের সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ভোট গ্রহণ শেষে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থীদের রেজাল্ট শীট না দিয়ে ও এজেন্টদের স্বাক্ষর না নিয়ে একতরফা ভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন বলে অভিযোগ করেন বিবি হাফসা সোমা। ১নং, ২নং ও ৩নং ওয়ার্ডের প্রাপ্ত ভোট পুনরায় গননা দাবী করে শনিবার (১৩ নভেম্বর) রির্টানিং কর্মকর্তা বরাবর তিনি লিখিত অভিযোগ দেন।

বিবি হাফসা সোমা (তালগাছ প্রতীক) বলেন, গত ১১ নভেম্বর ভোট চলাকালীন সময়ে আমার প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী জাহানারা বেগম (বই প্রতীক) সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে ১নং ওয়ার্ডে সৈদালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করে ব্যানার ও কর্মীদের মারধর করে তাড়াইয়া দেয়। এসময় প্রিজাইডিং অফিসার তড়িতড়ি করে ফলাফল ঘোষণার মাধ্যমে জাহানারাকে বিজয়ী ঘোষণা দেন। একই ভাবে ২নং ওয়ার্ডের জান আলী ভূঁইয়াবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র এবং ৩নং ওয়ার্ডের মোল্লাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রও জাহানারা বেগমের সন্ত্রাসী বাহিনী ককটেল ফুটিয়ে ও রকেট ল্যাঞ্জার ফুটিয়ে কেন্দ্র দখল করে ফেলেন। আমার এজেন্টদেরকে কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়। পরে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ফলাফল ঘোষণা করে জাহানারা বেগমকে বিজয়ী ঘোষণা দেন। কোন কেন্দ্র থেকে ফলাফল সীটে আমার এজেন্টদের থেকে স্বাক্ষর নেওয়া হয়নি। এমতাবস্থায় আমি ১,২,৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের ভোট পুনরায় গণনার দাবী জানাচ্ছি।

পুনরায় ভোট গণনার বিষয়ে ১৩ নং মায়ানী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির খান বলেন, প্রতিটি কেন্দ্রে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা প্রার্থীদের উপস্থিতি ফলাফল ঘোষণা করেছেন। নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ হয়েছে। স্থানীয়ভাবে পুনরায় ভোট গণনার বিধান নেই। উনারা যদি আদালতে যান তাহলে আদালতের নির্দেশে পুনরায় ভোট গণনা করা যেতে পারে।

আরো খবর