স্বতন্ত্র প্রার্থী হচ্ছেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন

top Banner

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১ মিরসরাই আসনে দলী প্রতিক না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন। সোমবার (২৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গিয়াস উদ্দিন।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের একসময়কার দাপুটে নেতা তৎকালীন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি, চট্টগ্রাম উত্তরজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও বর্তমান সদস্য মো. গিয়াস উদ্দিন মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তিনি এর আগে ২০০৯ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তবে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর উপজেলা নির্বাাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর কারণে পরাজয় বরণ করার পর স্থানীয় রাজনীতির মূলধারা থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়েন গিয়াস। সে থেকে অনেকটাই হামগুড়ি দিয়ে মাঠের রাজনীতিতে তিনি টিকে আছেন। মাঠে তার জনসমর্থন অন্যদের থেকে অনেকটা বেশি।

গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘মাঠের কর্মীরা আমাকে ভালোবাসে। মিরসরাই’র এক প্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্ত সবকিছুই আমার নখদর্পণে। যেহেতু নেত্রী বলেছেন কেউ যেন বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত না হয় এবং মিরসরাইয়ের মানুষ আমাকে মনেপ্রাণে ভালোবাসে ও সাধারণ জনগণের ইচ্ছা, আকাঙ্খায় আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হবো। নির্বাচন সুষ্ঠ হলে আমার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবেনা।

এর আগে মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা জেরিনের কাছ থেকে নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেন তিনি।

মিরসরাই আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন দলের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের মেজ পুত্র ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাহবুব উর রহমান রুহেল।

আরো খবর