গাড়িবহরে নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত নৌকার প্রার্থী রুহেল

top Banner

দীর্ঘ ৫৪ বছর পর চট্টগ্রাম-১ মিরসরাই আসনের নতুন মুখ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী মাহবুব উর রহমান রুহেল। তিনি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মিরসরাই আসন থেকে সাতবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের মেঝ সন্তান। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার সাক্ষরিত দলীয় মনোনয়ন নিয়ে ঢাকা থেকে ফিরে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমান বন্দরে হাজারো নেতাকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত হন রুহেল। এসময় হাজারো আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম নগরীর দ্যা পেনিনসুলায় একটি সংক্ষিপ্ত স্বাগত অনুষ্ঠানের শুরুতে মিরসরাই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। স্বাগত অনুষ্ঠানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক একেএম জাহাঙ্গীর ভূঁইয়ার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মাহবুব উর রহমান রুহেল, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান, মিরসরাই পৌরসভার মেয়র মো. গিয়াস উদ্দিন, করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌস হোসেন আরিফ, মিরসরাই উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মাইনুর ইসলাম রানা, সহ-সভাপতি আশরাফুল কামাল মিটু, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর হোসেন চৌধুরী তপু।

বুধবার (২৯ নভেম্বর) বিকালে মাহবুব উর রহমান রুহেল চট্টগ্রাম থেকে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা সহকারে উপজেলার বড়দারোগারহাটে পৌছালে হাত নেড়ে অপেক্ষমান বিপুল সংখ্যক উৎসুক ভক্ত সমর্থকদের শুভেচ্ছা জানান। একই সময় নেতাকর্মীরা তাদের পচন্দের প্রার্থী রুহেলকে আনন্দ উল্লাসে রুহেল রুহেল শ্লোগানে বরণ করে নেন। গাড়িবহর নিয়ে নিজ বাড়িতে গিয়ে নিজের পিতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সাথে ফুলেল শুভেচছা বিনিময় করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা।

মাহবুব উর রহমান রুহেল বলেন, ‘বাবার দেখানো পথেই আমি হাঁটতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকান্ডের সহযোগী হতে চাই। আমার বাবা সুদীর্ঘ সময় মিরসরাই উপজেলার উন্নয়নে কাজ করেছেন। মিরসরাই আসনে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত। ইনশাআল্লাহ।’

তিনি আরও বলেন, আমার বাবার অসমাপ্ত কাজগুলোর পাশাপাশি মিরসরাইকে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত হিসেবে গড়ে তুলবো। মিরসরাইকে গ্রীন মিরসরাই হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করে যাবো।

আরো খবর